১৪ই ফেব্রুয়ারী সভায় আসার পথে বিষ্ণুপুর ও উলুবেড়িয়াতে মুসলিমদের দ্বারা আক্রান্ত হিন্দু সংহতির কর্মীরা

গত ১৪ই ফেব্রুয়ারী, বুধবার কলকাতার বুকে ধর্মতলার রানী রাসমণি এভিনিউতে হিন্দু সংহতির দশম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত হয়। এই অনুষ্ঠানে যোগ দিতে রাজ্যের বিভিন্ন জেলা থেকে কর্মীরা গাড়ি করে সভায় আসছিল। কিন্তু আসার পথে পাকিস্তানপন্থী জিহাদি মুসলমানরা দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার বিষ্ণুপুর এবং হাওড়া জেলার উলুবেড়িয়াতে হিন্দু সংহতির কর্মীদের গাড়ি ভাঙচুর করে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুর থানা এলাকার হিন্দু সংহতির কর্মীরা ৩টি গাড়ি করে যখন নওহাজারীর পোলের ওপর দিয়ে পাকিস্তান মুর্দাবাদ স্লোগান দিতে দিতে আসছিল, তখন স্থানীয় মুসলিমরা গাড়ি লক্ষ্য করে ইট ছোঁড়ে। পরে বিশাল সংখ্যক মুসলিম জনতা সংহতি কর্মীদের গাড়ি ঘিরে ধরে এবং দাবি করে যে এই এলাকায় পাকিস্তান মুর্দাবাদ স্লোগান দেওয়া চলবে না। এই নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এই সংঘর্ষে হিন্দু সংহতির কয়েকজন কর্মী আহত হয়। পরে বিষ্ণুপুর থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এই ঘটনার ফলে সংহতি কর্মীরা ১৪ই ফেব্রুয়ারী-এর সভায় যোগ দিতে পারেনি।
অন্যদিকে, হাওড়া জেলার উলুবেড়িয়ার হিন্দু সংহতি কর্মীরা ৬টি গাড়ি করে ১৪ই ফেব্রুয়ারী-এর জনসভায় যোগ দিতে আসছিল। কিন্তু একটি গাড়ি একটু পিছনে থেকে  যায়। আর সেই গাড়িটিকে লক্ষ্য করে মুসলিমরা নিমদিঘির ফকিরপাড়া মোড়ের কাছে ইট ছোড়ে। সেই ইটের আঘাতে গাড়ির ড্রাইভার ও সামনে বসা দুজন হিন্দু সংহতির কর্মী আহত হয়। পরে কর্মীরা নেমে মুসলিমদের তাড়া করে এবং মুসলিমরা পালিয়ে যায়। পরে গাড়িটি ধর্মতলার সমাবেশে এসে পৌঁছায়।