আজ হিন্দু সংহতির শহীদ স্মরণ – “সোনাখালি দিবস”

sonakhaliঅত্যন্ত ভক্তি ও শ্রদ্ধার সঙ্গে প্রতি বছর ১০ই ফেব্রুয়ারী, দক্ষিণ ২৪ পরগনার বাসন্তী ব্লকের অধীন সোনাখালি’তে হিন্দু সংহতি তাদের শহীদ দিবস পালন করে  >>

অপহৃত বারো বছরের কিশোরীকে মোয়াজ্জেনের কবল থেকে উদ্ধার করলো মালদা পুলিশ

image

গত 28/4/16 মালদা জেলার পুখুরিয়া থানার অন্তর্গত পরানপুর গ্রামের বাসিন্দা পিন্টু  সাহার 12 বছরের মেয়ে শেফালী সাহাকে ফুসলিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায় ওই এলাকারই জনৈক আমানুল্লা হোসেন। 27 বছর বয়সী এই আমানুল্লা স্থানীয় একটি মসজিদের মোয়াজ্জেন। 30/4/16 তে পিন্টু সাহা পুখুরিয়া থানায় আমানুল্লা সহ আরও সাতজনের নামে অপহরণ অভিযোগ করে তার মেয়েকে উদ্ধারের আবেদন জানান। পুলিশের পক্ষ থেকে কোন বিশেষ উদ্যোগ দেখতে না পেয়ে পিন্টু সাহা হিন্দু সংহতির কাছে লিখিত আবেদন করেন সাহায্য পাওয়ার জন্য। সংহতি কর্মকর্তাদের পরামর্শে জেলা শাসক, পুলিশ সুপারসহ আরও কয়েকজন উচ্চপদস্থ প্রশাসনিক অাধিকারিকদের কাছে মেয়েকে উদ্ধারের প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত করার জন্য এবং অভিযুক্তদের শাস্তির জন্য লিখিত আবেদন করেন শেফালীর বাবা।

অবশেষে গত 29/5/16-পুলিশ শিলিগুড়িতে ছেলের আত্মীয় বাড়ি থেকে মেয়েকে উদ্ধার করে পুকুরিয়া থানায় নিয়ে আসে। পরের দিন তাকে চাঁচল মহকুমা আদালতে তোলা হয় ও গোপন জবানবন্দী নেওয়ার পরে তাকে হোমে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। 31/5/16- পিন্টু সাহা ব্যক্তিগত বন্ড এ মেয়েকে হোম থেকে বাড়ি নিয়ে যান।

বাসন্তী এলাকায় রাজনৈতিক সংঘর্ষের নামে হিন্দু সংহতির কর্মীর বাড়ি আক্রমণ

গত ২১শে মে দুপুরে, স্থানীয় RSP নেতা রমজান মোল্লার নেতৃত্বে প্রায় ১০০ জন মুসলিম দুষ্কৃতী বাসন্তী থানার অন্তর্গত ৮ নং কুমড়াখালি গ্রাম আক্রমণ করে। তাদের আক্রমনের মূল লক্ষ্য ছিল হিন্দু সংহতির কর্মী, রবীন রায়। আক্রমণকারীদের অভিযোগ ছিল যে ঐ গ্রামের হিন্দুরা বিধানসভা নির্বাচনে RSP কে ভোট না দিয়ে তৃণমূলকে দিয়েছে।

রবীনকে ঘটনাস্থলে না পেয়ে তারা রবীনের পরিবার ও প্রতিবেশীদের উপর হামলা চালায় এবং এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে থাকে। গুলিতে রবীনের দিদি ও ভাই আহত হয়। পরে তৃণমূলের স্থানীয় নেতৃত্ব তাদের ক্যানিং হাসপাতালে ভর্তি করে। গুলিতে স্থানীয় এক মুসলিমও আহত হয় এবং পরে মারা যায়।

পুলিশ কিছু ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে কিন্তু মূল অভিযুক্ত রমজান মোল্লা, সবদেল মোল্লা, ইউসুফ মোল্লা, মুকতার মোল্লা সহ বাকিরা এখনও পলাতক। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ যে অভিযুক্তরা নদী পেরিয়ে সন্দেশখালিতে সেখানকার কুখ্যাত দুষ্কৃতি ও তৃণমূল নেতা শাহজাহান শেখের কাছে আশ্রয় পেয়েছে।