পাকিস্তানের প্রথম হিন্দু মহিলা বিচারপতি হলেন সুমন কুমারী

suman kumariমুসলিম রাষ্ট্র পাকিস্তানের প্রথম হিন্দু মহিলা বিচারপতি  নিযুক্ত হলেন সুমন কুমারী। সে দেশের সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিচারক সুমন কুমারি কামবার-শাহদাদকোটের বাসিন্দা। সেখানকারই একটি আদালতের দায়িত্বভার নেবেন তিনি। পাক মাটিতে মাত্র ২ শতাংশ হিন্দুর বাস, যদিও এ দেশে সংখ্যায় ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের পরই হিন্দুরা। বর্তমান পরিস্থিতিতে এই ঘটনাকে তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে।

সুমনের বাবা পবন কুমার বোদন পেশায় চোখের ডাক্তার। দরিদ্র গ্রামবাসীদের নিখরচায় চিকিৎসা পরিষেবা দিয়ে থাকেন তিনি। সাধারণ আয় সত্ত্বেও তিন কন্যার পড়াশোনায় কোনও ঘাটতি হতে দেননি তিনি। বড় মেয়ে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার, আরেক মেয়ে চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট, আর সুমন বিচারক। হায়দরাবাদ থেকে আইন নিয়ে পড়াশোনা করার পর করাচির শহিদ জুলফিকার আলি ভুট্টো ইনস্টিটিউশন থেকে স্নাতকোত্তর করেছেন সুমন। পরিবারের সামান্য আয় কিংবা রক্ষণশীল সমাজ, কোনও কিছুই বাধা হতে পারেনি সুমনের উত্থানের পথে। সব কিছুকে পিছনে ফেলে শীর্ষস্থান দখল করে নিয়েছেন তিনি। মেয়ের সাফল্যে বাবার মুখের হাসি আজ একটু বেশিই চওড়া। পাক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেছেন, ‘সুমন একটি কঠিন পেশা বেছে নিয়েছে। তবে আমার বিশ্বাস, কঠোর পরিশ্রম এবং সততার মধ্য দিয়ে সে অবশ্যই সফল হবে।’

পাকিস্তানের মতো দেশে যেখানে হিন্দু সংখ্যালঘুদের উপর নির্যাতনের খবর প্রায় রোজকার ঘটনায় পরিণত হয়েছে, সেখানে এ ধরনের বিষয় নিঃসন্দেহে তাৎপর্যপূর্ণ। তবে পাকিস্তানে বিচারক বা বিচারপতি পদে হিন্দু ধর্মাবলম্বীর নিয়োগ এই প্রথম নয়। ২০০৫ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত পাকিস্তানের কার্যনির্বাহী প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব সামলেছিলেন রানা ভগবানদাস।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s