জলপাইগুড়িতে হিন্দু নাবালিকাকে অপহরণ করলো মালদা থেকে আসা মুসলিম শ্রমিকরা

১২ বছরের এক হিন্দু নাবালিকাকে অপহরণ করে হাত-পা ও মুখ বেঁধে আটকে রাখলো মালদহ থেকে আসা ৬জন মুসলিম ঠিক শ্রমিক। গত ১১ই জুন সোমবার ঘটনাটি ঘটেছে জলপাইগুড়ি শহরের ১৭নং ওয়ার্ডের আনন্দপাড়ায়। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, জলপাইগুড়ি পুরসভার পাম্পিং স্টেশনের কাজ চলছে। আর সেই কাজের সূত্রে মালদহের গাজোল থেকে ওই ৬জন মুসলিম ঠিকা  শ্রমিক কাজ করতে জলপাইগুড়ি শহরে এসেছিলো। তারা মেয়েটির পাড়াতেই ভাড়া থাকছিল। ঘটনার দিন অর্থাৎ ১১ই জুন, সোমবার বিকেলে টিউশন পড়তে বেরিয়ে আর বাড়ি ফেরেনি মেয়েটি। বাড়ির লোক অনেক খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে শেষে থানার দ্বারস্থ হয়। প্রায় ৭ঘন্টা খোঁজাখুঁজি করার পর ওই নির্মাণকর্মীদের ঘর থেকে মেয়েটিকে উদ্ধার করে পুলিশ ও স্থানীয়রা । পুলিশ ও স্থানীয়রা ঘরে ঢুকে চমকে যান। তারা দেখতে পান, ওই হিন্দু নাবালিকা মেয়েটিকে হাত,পা ও মুখ বাঁধা অবস্থায় মেঝেতে ফেলে রাখা হয়েছে। সেখান থেকে ওই শ্রমিকদেরকে বের করে আনে ক্ষিপ্ত স্থানীয়রা এবং প্রচুর মারধর করে।জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানার  পুলিশ সরাফ আলী (১৮), আখতার আলী (২৮), ভাদরু শেখ(৩০) এবং গুল মহম্মদ (২২)-সহ ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। নাবালিকা মেয়েটির পরিবার থানায় অপহরণের অভিযোগ দায়ের করেছে। এই ঘটনায় জলপাইগুড়ি শহরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এবং স্থানীয় বাসিন্দারা বহিরাগত শ্রমিক দিয়ে এলাকার কাজের প্রতিবাদ জানিয়েছে।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s