বন্ধুত্ব পাতানোর মূল্য ১লক্ষ ৪৯ হাজার টাকা দিতে হলো পাকিস্তানকে

bondhutto patanor mulyoপাকিস্তানের প্রতি সৌজন্যেরও ‘মূল্য’ চোকাতে হয়েছে ভারতকে। সব সমালোচনাকে অগ্রাহ্য করে ২০১৫ সালের ২৫শে ডিসেম্বর তৎকালীন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে লাহোর গিয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদি। সেই সফরে প্রধানমন্ত্রীর পাকিস্তানের আকাশ ব্যবহারের জন্য ১ লক্ষ ৪৯ হাজার টাকা দাম ধরানো হয় ভারতকে। আরটিআই আবেদনের প্রেক্ষিতে উঠে এসেছে এমনই তথ্য। ২০১৪ থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে বায়ুসেনার বিমান ব্যবহার করে প্রধানমন্ত্রী বিদেশ সফরের খরচ জানতে চেয়ে তথ্যজানার অধিকার আইনে আবেদন করেছিলেন অবসরপ্রাপ্ত সেনাকর্মী লোকেশ বাত্রা। তা থেকে নানা চমকপ্রদ তথ্য জানা গিয়েছে। সবচেয়ে বড়ো ব্যাপার হল, এই দু’বছরে প্রধানমন্ত্রীর বিদেশ সফরের সময় পাকিস্তানের আকাশ ব্যবহারের জন্য ২ লক্ষ ৮৬ হাজার টাকা দিতে হয়েছে ইসলামাবাদকে। বায়ুসেনার বিমানে চড়ে নেপাল, ভুটান, বাংলাদেশ, আফগানিস্তান, কাতার, অস্ট্রেলিয়া, পাকিস্তান, রাশিয়া, ইরান, ফিজি এবং সিঙ্গাপুর, এই ১১ দেশ সফর করেছেন প্রধানমন্ত্রী। পাকিস্তানের আকাশ ব্যবহার করলে যাত্রী পরিবহণকারী বিমানকে তার দাম দিতে হয়। রাষ্ট্রপতি, উপরাষ্ট্রপতি বা প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান সংস্থা এয়ার ইন্ডিয়া ব্যবহার করেন। তার বিল মেটায় বিদেশমন্ত্রক। তবে বায়ুসেনার বিমান ব্যবহারের পাকিস্তানের কাছে আনুমোদন চাইতে হয়। দিতে হয় অতিরিক্ত মাশুল। প্রধানমন্ত্রীর সফরের জন্য সেই অতিরিক্ত দামটাই দিতে হয়েছে। ২০১৬ সালের ২২-২৩ মে বায়ুসেনার বিমানে চড়ে পাকিস্তানের ওপর দিয়ে ইরান সফরে গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। সেই বাবদ ৭৭ হাজার ২১৫ টাকা রুট নেভিগেশন চার্জ ধার্য করা হয়েছে। ওই বছরেই ৪-৬ জুন কাতার সফরের সময় পাকিস্তানের আকাশ ব্যবহারের জন্য ৫৯ হাজার ২১৫ টাকা ইসলামাবাদকে দিয়েছে দিল্লি।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s