বাংলাদেশি বন্দিদের নিয়ে সমস্যায় রাজ্য করা দপ্তর

বাংলাদেশি বন্দিদের নিয়ে ভয়ানক সমস্যায় পড়েছে রাজ্য কারা দপ্তর। একেই সংশোধনাগারগুলিতে বিচারাধীন বন্দির সংখ্যা বেড়েই যাচ্ছে তার উপর খালাস পাওয়ার পরেও বাংলাদেশি বন্দিদের পুশব্যাক করা যাচ্ছে না। রাজ্যের বিভিন্ন জেলে ছাড়া পাওয়ার পরেও ওই বন্দিরা বছরের পর বছর থেকে যাচ্ছে। আর তাতেই সংশোধনাগারগুলিতে চাপ বাড়ছে। সমস্যার সমাধান চেয়ে রাজ্যের কারামন্ত্রী উজ্জ্বল বিশ্বাস ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় কারা দপ্তরে চিঠি দিয়েছেন।

উজ্বলবাবু বলেন,  ‘‘জেলগুলির ধারণ ক্ষমতার বাইরে বন্দি রাখতে হচ্ছে। এর ফলে নানা ধরনের সমস্যা হচ্ছে। তার উপর আইনি জটিলতায় জানখালাস বাংলাদেশি বন্দিদের পুশব্যাক করা যাচ্ছে না। সমস্যা সমাধানে কেন্দ্রীয় কারা দপ্তরকে জানিয়েছি। এব্যাপারে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে কয়েক দফায় বৈঠক হলেও কোনওভাবেই জট কাটছে না বলে মন্ত্রী অভিযোগ করেছেন।’’

রাজ্যের বিভিন্ন সংশোধনাগারে ৪০০০ বাংলাদেশি বন্দি রয়েছে। তার মধ্যে ২০০০’র বেশি বন্দি জানখালাস হয়ে গিয়েছে। কিন্তু আইনি জটিলতায় তাদের ফেরানো যাচ্ছে না। কারা দপ্তরের কর্মীদের একাংশ জানান, সংশোধনাগারে যত জন বন্দি থাকতে পারে তার প্রায় দ্বিগুণ বন্দি রাখতে হয়। এত বন্দির উপর নজর রাখার মতো নিরাপত্তা রক্ষীর অভাবও রয়েছে। তার উপর জানখালাস বন্দিদের নিয়ে বাড়তি সমস্যা তৈরি হয়েছে।

কারা দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, কলকাতার প্রেসিডেন্সি সংশোধনাগার ছাড়াও উত্তরবঙ্গের বালুরঘাট, মালদহ, মুর্শিদাবাদ ও জলপাইগুড়ি সংশোধনাগারে জানখালাস বাংলাদেশির সংখ্যা বেশি রয়েছে। এদের কেউ কেউ সাজার মেয়াদ শেষ হওয়ার পর তিন বছর, কেউ চার বছর, কেউ আবার সাত-আট বছরের বেশি সময় ধরে রয়ে গিয়েছে।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s