জালনোটের মামলায় সারাদেশের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ প্রথম স্থানে

Jalnoter mamlay saradesher২০১৬’র নিরিখে দেশের মধ্যে জাল নোট নিয়ে সর্বাধিক মামলা রুজু হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে। দেশের মধ্যে সর্বাধিক ১৮৩ জন গ্রেপ্তারও হয়েছে এই রাজ্যে। সম্প্রতি ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর পক্ষ থেকে ২০১৬’র গোটা দেশের অপরাধ পরিসংখ্যানের রিপোর্ট প্রকাশ করা হয়েছে। তাতেই দেখা যাচ্ছে, জাল নোট সংক্রান্ত মামলায় পশ্চিমবঙ্গ সবার উপরে রয়েছে। তাতে আরও বলা হয়েছে, জাল নোট পাচারে পশ্চিমবঙ্গ ছাড়াও ভারতের সীমান্ত রাজ্য হিসেবে গুজরাত, উত্তরপ্রদেশের সঙ্গে একই আসনে রয়েছে দিল্লিও। বলা ভালো, ২০১৬’তে সর্বাধিক মূল্যের প্রায় সাড়ে পাঁচ কোটি টাকারও বেশি জাল নোট দিল্লি থেকে বাজেয়াপ্ত করেছিল পুলিশ।
ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর (এনসিআরবি) রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১৬’তে দিল্লিতে দেশের মধ্যে সর্বাধিক মোট ১,১৪,৭৫১টি জাল নোট বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিল। যার মূল্য ৫,৬৫,২১,৪৬০ টাকা। এরপরেই দ্বিতীয় স্থানে ছিল গুজরাত। সেখানে ৩৯,৭২৫ টি জাল নোট বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিল। যার মূল্য প্রায় ২,৩৭,২৪,০৫০ টাকা। তৃতীয় স্থানে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। এখানে ২০১৬’তে ৩২,৮৬৯টি জাল নোট বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ। যার মূল্য প্রায় ২,৩২,৯৫,৮০০ টাকা। এরপরে যথাক্রমে অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্ণাটক, তেলেঙ্গানা, উত্তরপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, পাঞ্জাব এবং বিহারের মতো রাজ্য রয়েছে। সবমিলিয়ে ২০১৬’তে গোটা দেশে ১৫,৯২,৫০,১৮১ কোটি টাকার জাল নোট বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ। দেশের মধ্যে সর্বাধিক জাল নোট দিল্লিতে বাজেয়াপ্ত হলেও, পশ্চিমবঙ্গ মামলা রুজু এবং গ্রেপ্তারের পরিসংখ্যানে সবার উপরে রয়েছে। এরাজ্যে ২০১৬’তে জাল নোট সংক্রান্ত ২০৩টি মামলা রুজু হয়েছে। যাতে ১৮৩ জন গ্রেপ্তার হয়েছে। দ্বিতীয়স্থানে থাকা উত্তরপ্রদেশে ১২৫টি মামলা হয়েছে এবং ১১২ জন গ্রেপ্তার হয়েছে।
তৃতীয়স্থানে রয়েছে কর্ণাটক, সেখানে মোট ৯৯টি মামলা হয়েছে। যাতে ৭৬ জন গ্রেপ্তার হয়েছে। এই তালিকায় এরপরেই রয়েছে মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, দিল্লি, গুজরাতের মতো রাজ্য। এদিকে, ২০১৬ সালের ৮ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ঘোষণা করেন মধ্যরাত থেকে ৫০০ এবং ১,০০০ টাকার নোট বাতিল। এর পরপরই ২,০০০ টাকার নোট বাজারে আনা হয় সরকারের পক্ষ থেকে। এখন এনসিআরবি রিপোর্টে বলা হয়েছে, দু’হাজার টাকার নোট বাজারে আনার পর ২০১৬’র মাত্র ৫৩ দিনেই ২,২৭২টি জাল দু’হাজার টাকার নোট দেশজুড়ে বাজেয়াপ্ত হয়েছিল। যার মধ্যে ১৩০০টি জাল নোট গুজরাত, ৫৪৮টি পাঞ্জাব এবং ২৫৪টি কর্ণাটক থেকে বাজেয়াপ্ত করা হয়। ২০১৬ সালে দেশের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ থেকে দ্বিতীয় সর্বাধিক ১৩,৭৮৬টি এক হাজার টাকার নোট এবং ১৯,০০৫টি ৫০০ টাকার নোট বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিল। ২০১৬ সালে গোটা দেশে ২,৮১,৮৩৯টি জাল নোট বাজেয়াপ্ত করা হয়। যার মূল্য ১০,১২,২২,৮২১ কোটি টাকা।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s