জিশাকে ধর্ষণ ও খুনে দোষী আমিরুলকে ফাঁসির সাজা

jishake dhorson o khune ovijuktoকেরলের কলেজ ছাত্রী জিশাকে ধর্ষণ ও খুনের দায়ে দোষীকে মৃত্যুদণ্ডের সাজা দিল এরনাকুলামের দায়রা আদালত। এই মামলায় মঙ্গলবারই অসমের বাসিন্দা আমিরুল ইসলাম দোষী সাব্যস্ত হয়েছিল। কেরলে শ্রমিকের কাজ করত ২৩ বছরের আমিরুল। ৩৭৬ (ধর্ষণ), ৩০২ (খুন), ৪৪৯ (জোর করে ঘরে ঢোকা) এবং ৩৪২ (আটকে রাখা) ধারায় আমিরুলকে দোষী সাব্যস্ত করে দায়রা আদালত। এই রায়কে স্বাগত জানিয়েছেন জিশার বোন দীপা। তাঁর কথায়, ”জিশাকে ফিরে পাব না। তবে আদালতের রায়ে আমরা খুশি। অনেকে আমাদের সাহায্য করেছেন। সকলকে ধন্যবাদ।” ২০১৬ সালের ২৮ এপ্রিল কুরুপ্পামপাডিতে নিজের বাড়িতেই জিশার দেহ মেলে। তাঁর শরীরে একাধিক জায়গায় আঘাতের চিহ্ন ছিল। ৩০ বছরের জিশা এরনাকুলামের আইন কলেজের ছাত্রী ছিলেন। ঘটনায় গোটা দেশে আলোড়ন পড়ে গিয়েছিল। ৪৯ দিন পর গ্রেফতার করা হয়েছিল আমিরুলকে।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s