লাউডস্পিকারে আজানের সঙ্গে ইসলামের সম্পর্কই নেই, আদালতে মুম্বইয়ের মওলানা

4444-3.jpgলাউডস্পিকারে আজান দেওয়া নিয়ে এবার গায়ক সোনু নিগমের পাশেই দাঁড়িয়ে গেলেন মুম্বইয়ের এক ব্যক্তি। এনিয়ে বেশ কিছুদিন আগে বম্বে হাইকোর্টে মামলাও করেছেন। কোরানের উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি আদালতে বোঝানোর চেষ্টা করেছেন, মাইকে আজান দেওয়ার সঙ্গে ইসলামের কোনও সম্পর্ক নেই।
ভোরে লাউডস্পিকারে আজান দেওয়া নিয়ে বহুদিন ধরেই সরব মুম্বইয়ের মওলানা মহম্মদ আলি ওরফে বাবুভাই। শুধু তাই নয়, মাইকে আজান দেওয়াকে তিনি ইসলাম বিরোধীও বলে দাবি করেছেন। বাবুভাইয়ের মতে, মসজিদে মাইকে আজদন দেওয়া অ-ইসলামি। লাউডস্পিকার ইসলামের অঙ্গ নয়, এটা কোনও মৌলিক অধিকারও নয়। প্রায় দেড় হাজার বছর আগে ইসলাম এসেছিল। তখন এর প্রচলন ছিল না। লাউডস্পিকার বন্ধ করে দিলে তা ইসলাম বিরোধী হবে না। কোনও আইনজীবী দিতে না পারায় আদালতে নিয়েই সওয়াল করছেন বাবুভাই। কোরানের মারাঠি অনুবাদও আদালতে তিনি জমা দিয়েছেন।
উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই বাবুভাইয়ের বক্তব্যকে সমর্থন করে মুম্বই, মধ্যপ্রদেশে ও উত্তর প্রদেশে মোট ১২টি মসজিদে মাইকে আজান দেওয়া বন্ধ হয়েছে। অবশ্য এনিয়ে বাবুভাইয়ের বিরোধিতাও করেছে একাধিক মহল।
প্রসঙ্গত, লাউডস্পিকারে ভোরের আজান দেওয়া নিয়ে সরব হয়েছিলেন গায়ক সোনু নিগম। এনিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে ফতোয় দিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের এক মওলানা। তবে সোনুর বক্তব্যকে সমর্থনও করেছেন বহু মানুষ।

Advertisements