রোহিঙ্গা মুসলিমদের চিহ্নিত করে বিতাড়িত করা হবে, জানাল কেন্দ্র

imagesএবার অনুপ্রবেশকারীদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিতে চলেছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকার। মঙ্গলবার কেন্দ্র সাফ জানিয়েছে, এ দেশে অবৈধ ভাবে প্রবেশ করে ঘাঁটি গাড়া রোহিঙ্গা মুসলিমদের সনাক্তকরণের কাজ চলছে এবং তাদের গ্রেপ্তার করে দেশ থেকে বিতাড়িত করা হবে।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের এক সিনিয়র আধিকারিক জানিয়েছেন, গত ৫-৭ বছরের মধ্যে মায়ানমার থেকে অন্তত ৪০ হাজার রোহিঙ্গা বেআইনিভাবে ভারতে প্রবেশ করেছে। তারপর বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে পড়ে তারা। এদের এক বড় সংখ্যা বাসা বেঁধেছে জম্মুতে। ওই আধিকারিক আরও জানিয়েছেন, রোহিঙ্গারা তিনটি পথে ভারতে প্রবেশ করছে। এ দেশে সমুদ্রপথে, বাংলাদেশ সীমান্ত পেরিয়ে ও মায়ানমার সীমান্তে চিনা এলাকা দিয়ে এই অনুপ্রবেশ হচ্ছে। এই মুহূর্তে প্রায় ৫৫০০ রোহিঙ্গারা জম্মুতে রয়েছে। তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক আশঙ্কা করছে এদের সংখ্যা ১১,০০০ হতে পারে। গোটা দেশের প্রেক্ষিতে জম্মুতেই রোহিঙ্গাদের সংখ্যা সর্বাধিক বলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সূত্রে খবর। কয়েক দিন আগে তাদের বস্তিতে তল্লাশি চালিয়ে জাল আধার কার্ড-সহ বেশ কিছু নকল নথি উদ্ধার করে পুলিশ।
সোমবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব রাজীব মেহের্ষি এই বিষয়ে নয়া দিল্লিতে একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করেন। রোহিঙ্গাদের দেশ থেকে বিতাড়িত করতে কী পদক্ষেপ নেওয়া হবে তাই নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। জম্মু কাশ্মীরের মুখ্য সচিব, ডিজিপি, বিএসএফের আধিকারিকরা ও গোয়েন্দা অফিসাররা বৈঠকে ছিলেন। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থাগুলি রোহিঙ্গাদের সঙ্গে জঙ্গি সংগঠনগুলির যোগ থাকার আশঙ্কাও উড়িয়ে দিচ্ছে না। তারা মনে করছে ভারতীয় মুসলিমদের থেকে ওই রোহিঙ্গাদের মধ্যে সন্ত্রাসের দিকে ঝুঁকে পড়ার অধিক সম্ভাবনা রয়েছে।
বাংলাদেশ ও মায়ানমার থেকে আশা অনুপ্রবেশকারীদের বোঝা দীর্ঘদিন থেকে বইছে ভারত। উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্য-অসম, ত্রিপুরায় বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারীদের দৌলতে বিপন্ন ভূমিপুত্ররা। সম্প্রতি, সুপ্রিম কোর্ট দেশ থেকে অবৈধ বাংলাদেশি বিতাড়িত করার আদেশ দিয়েছে।

Advertisements