বামপন্থী রাজ্য ত্রিপুরায় সামান্য রাস্তা নিয়ে নিরীহ হিন্দুদের উপর জেহাদীদের সশস্ত্র আক্রমনঃ নিহত এক হিন্দু

কেরলের পর এবারে জেহাদী আক্রমনের খবর পাওয়া গেল আরেক বামপন্থী রাজ্য ত্রিপুরা থেকে। সেখানে ঝরল রক্ত – বিসর্জন গেল প্রান। স্থানীয় সূত্র থেকে প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী, গত ২৪ ফেব্রুয়ারী,২০১৭, উত্তর ত্রিপুরার শহরতলী অঞ্চলে সামান্য একটি রাস্তা নিয়ে বচসার জেরে স্থানীয় অন্তত ৬০-৭০ জন মুসলমান এলাকারই ১১ জন হিন্দুকে অস্ত্র সহ আক্রমণ করে। হিন্দুদের আরও অভিযোগ, রাস্তার দখলদারি নিয়ে মুসলমানেরা যে এভাবে হঠাৎ তীর-ধনুক/বল্লম নিয়ে প্রতিপক্ষের নিরস্ত্র হিন্দুদের উপর আক্রমণ করতে পারে, তা ছিল তাদের স্বপ্নেরও অতীত। আজও যেন তারা কিছুতেই সেই ঘোর কাটিয়ে উঠতে পারছেন না।
খবরে প্রকাশ, সেদিনের সেই ঘটনায় আহত শ্রী অসীম দাস গত ৮ই মার্চ পরলোক গমন করেন। ফলতঃ ১০ই মার্চ পানিসাগর থেকে শ্রী দাসের শবদেহ নিয়ে উত্তর ত্রিপুরার বিভিন্ন জায়গা থেকে দূরদূরান্ত থেকে আগত অন্তত হাজার খানেক শোকার্ত মানুষের মিছিল, পদ্মবিলের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। মৃতদেহকে সাক্ষী রেখে উক্ত রাস্তাটি নির্মানে সকলে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হন। জানা যাচ্ছে, এরপর বহিরাগত এবং নিকটবর্তী এলাকার কমপক্ষে হাজার তিনেকের মত হিন্দু একত্রিত হয়ে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় রাস্তা নির্মানের কাজে হাত লাগান।
সকলের মিলিত উদ্যোগে ৯ই মার্চ থেকেই জেহাদিদের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে পরিশেষে সম্পন্ন হয় রাস্তার কাজ। আর নিজের বুকের রক্ত ঢেলে যেন সেই রাস্তা ধুয়ে পরিষ্কার করে দিয়ে গেলেন সদ্য জেহাদি হামলায় বীরগতি প্রাপ্ত যুবক শ্রী অসীম দাস ।

Advertisements