বহু বাংলাদেশী জঙ্গির পাসপোর্ট করে দিয়েছে ধৃত ফয়েজউল্লাহ

faijullahজঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত একাধিক বাংলাদেশী যুবককে ভারতীয় পাসপোর্ট বানিয়ে দিয়েছে সিআইডির ধৃত ফয়েজউল্লাহ। ওই পাসপোর্ট নিয়েই সীমান্ত পেরিয়ে নিয়মিত বাংলাদেশে যাতায়াত করেছে জিহাদি যুবকেরা। এদের মধ্যে অনেকেই বাংলাদেশের জেএমবি সদস্য বলে প্রাথমিক তদন্তে জানা যাচ্ছে। পাশাপাশি অসম ও মুম্বই-এর যুবকদের এরাজ্যের বাসিন্দা দেখিয়ে পাসপোর্ট করে দিয়েছে ধৃত ফয়েজউল্লাহ। যারা পাসপোর্ট পেয়েছে তাদের ধরা ও গতিবিধি নিয়ন্ত্রণ করার  চেষ্টা চালাচ্ছেন গোয়েন্দারা। জানা যাচ্ছে, এই রাজ্যের সীমান্ত লাগোয়া একাধিক খারিজী মাদ্রাসায় তার নিয়মিত যাতায়াত ছিল। সেখানে জিহাদি শিক্ষা দেওয়াই ছিল তার  মূল কাজ। গোয়েন্দারা জেনেছেন, অনুমোদনহীন এই মাদ্রাসাগুলোতে বাংলাদেশী যুবকদের আনাগোনা রয়েছে। তারা বিভিন্ন জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত। জিহাদি ভাষণের পাশাপাশি অস্ত্র ও বিস্ফোরক তৈরির প্রশিক্ষণ তারাই দিচ্ছে। একইসঙ্গে সীমান্ত পেরিয়ে অনেক জঙ্গি এই রাজ্যে পাকাপাকিভাবে থাকতে শুরু করেছে। এরাজ্যে বসেই তারা জঙ্গি সংগঠনের কাজকর্ম চালাচ্ছে। তাদের ভোটার কার্ড থেকে শুরু করে যাবতীয় ভারতীয় পরিচয়পত্র রয়েছে। এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে ধৃত ফয়েজউল্লাহ-এর। আর এইকাজে ফয়েজউল্লাহ-কে সাহায্য করেছে পশ্চিমবঙ্গের এক বাসিন্দা। আর সমস্ত জঙ্গি সংগঠনই এখন পাসপোর্ট জোগাড়ের ওপর গুরুত্ব দিয়েছে। এতে সীমান্ত পেরিয়ে  সুবিধা তেমনি নিজেদের ভারতীয় বলেও প্রমান করা যায়। ফয়েজউল্লাহ জেরায় জানিয়েছে  পাসপোর্ট আসল। আবার কিছু ক্ষেত্রে অন্যের পাসপোর্ট হাতিয়ে সেখানে জিহাদি যুবকদের ছবি বসিয়ে পাসপোর্ট বানানো হয়েছে। এখন এই পাসপোর্ট নিয়ে কেউ আইএস-এ যোগ দিয়েছে কিনা, সেই প্রশ্ন এখন গোয়েন্দাদের বেশি করে ভাবাচ্ছে।

Advertisements