তিন তালাক জারি রাখতে মরিয়া মুসলিম ল’ বোর্ড

তিন তালাক বজায় রাখার সিদ্ধান্তে যথারীতি অনড় মুসলিম ল’ বোর্ড৷ দেশজুড়ে প্রবল সমালোচনার মুখেও ফের নিজেদের সমর্থনে সুর চড়ালো তারা৷ শনিবার এক বিবৃতিতে বোর্ডের তরফে জানানো হয়, শরিয়তের অধীনেই মুসলিম মহিলারা নিজেদের বেশি সুরক্ষিত বলে মনে করেন৷

talaq_webঅন্যদিকে মাহোবা ও বারাণসীতে তিন তালাকের বিরু‌দ্ধে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বক্তব্যের বিরোধিতা করে প্রতিবাদ মিছিলে শামিল হলেন আগ্রার মুসলিম মহিলারা৷ কেন্দ্রীয় সরকার যাতে ইসলামি সংস্কৃতি ও আইনের বিরোধিতা না করে তার আবেদন জানিয়ে রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের উদ্দেশে জেলাশাসকের কাছে স্মারকলিপিও পেশ করেন৷ তিন তালাক নিয়ে কেন্দ্রের অবস্থানের বিরু‌দ্ধে স্বাক্ষর সংগ্রহ অভিযানে নামল রামপুরের জামা মসজিদ কমিটি৷ তিন তালাক প্রথায় পরিবর্তন আনার বিরু‌দ্ধে সুর চড়িয়েছে অল ইন্ডিয়া মিলি কাউন্সিলও৷ ল’ বোর্ডের এগজিকিউটিভ সদস্য আজমা জেহরা জানিয়েছেন, সারা দেশের মুসলিম মহিলারা শরিয়তের তিন তালাক প্রথার সমর্থনে এগিয়ে আসছেন৷ তাঁর বক্তব্য, অন্যদের তুলনায় মুসলিম সমাজে বিবাহবিচ্ছেদের হার কম৷ বিচ্ছেদের পরও মহিলাদের জন্য অনেক অধিকার সংরক্ষণ করেছে শরিয়ত৷ তাঁরা পুনরায় বিয়ে করে নতুন জীবন শুরু করতে পারেন৷ তাই অধিকাংশ মুসলিম মহিলাই শরিয়তের অধীনে নিজেদের সুরক্ষিত মনে করেন৷ অভিন্ন দেওয়ানি বিধির আওতায় আসতে চান না৷

4শুধু শহর নয়, গ্রামের মহিলারাও তালাক প্রথাকে সমর্থন করছেন বলে জেহরা জানান৷ তিনি বলেন, “মোদিজি যখন বলেছিলেন, এটি ‘হিন্দু-মুসলিমের বিষয় নয়’, উনি ঠিকই বলেছিলেন৷ ইস্যুটি আসলে তৈরি করেছে আরএসএস৷ এখন ভারতীয়দের ঠিক করতে হবে তাঁরা কোনটা অনুসরণ করবেন– সমস্ত ধর্মের অধিকার সুরক্ষিত রাখার কথা বলে যে সংবিধান সেটি না কি গৈরিক বাহিনীর দেওয়া নির্দেশ?”

প্রসঙ্গত, মুসলিম মহিলাদের বিক্ষোভ মিছিল নামে একটি মিছিলের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। এই মিছিলের ছবিতে দেখা যাচ্ছে যে, মিছিলে একজনও মহিলা নেই!

Advertisements