গেরুয়া গেঞ্জিতে জয় শ্রীরাম : রামপুরহাট থানায় আটক ৫ যুবক

শুধু ‘হর হর মহাদেব’ এবং ‘জয় শ্রীরাম ‘ লেখা গেরুয়া গেঞ্জি পরায় ৫ জন যুবকে দুই ঘন্টা আটকে রাখল রামপুরহাট থানার পুলিশ। দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদের পর বিকালের দিকে মুচলেখা দিয়ে তবে মুক্তি পান তাঁরা।
প্রসঙ্গত, গত বছরের ১৬ই অক্টোবর মোল্লারপুরের কাছে খরাসিনপুর গ্রামের মোড়ে নৃশংসভাবে মারা হয় ইন্দ্রজিৎ দও নাম এক যুবকে। দিন পনেরো পর কলকাতার পিজি হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়। গত ২৬শে মার্চ,২০১৭-তে ইন্দ্রজিতের মায়ের হাতে ৫১ হাজার টাকার সাহায্য তুলে দিতে আসেন বর্ধমানের সুমুদ্রগড়-সহ বেশ কয়েকটি জেলা থেকে কয়েকজন যুবক। এঁদের মধ্যে শুভঙ্কর অবতার, সৌরভ গোস্বামী, মিলন মন্ডল,শিবশঙ্কর মন্ডল, রাজকৃষ্ণ আচার্যরা এদিন সকালে ইন্দ্রজিতের মল্লারপুরের বাড়িতে গিয়ে তাঁর মায়ের হাতে ৫১ হাজার টাকা এবং একটি বাঁধানো স্মারক তুলে দেন। এরপর রামপুরহাট স্টেশনে ট্রেন ধরে তাঁদের বাড়ি ফেরার কথা ছিল। কিন্তু সেখান থেকেই ৫জনকে আটক করে রামপুরহাট থানার পুলিশ। থানায় বসিয়ে রেখে দুই ঘন্টা ধরে ম্যারাথন জেরা করেন রামপুরহাট মহকুমা পুলিশ আধিকারিক ধৃতিমান সরকার এবং ইন্সপেক্টর স্বপন ভৌমিক।
শঙ্করবাবু বলেন, ‘আমরা রামপুরহাট স্টেশনের ক্যান্টিনে দুপুরে খেতে বসেছিলাম। সেখান থেকে সন্দেহের বসে রামপুরহাট থানা আটক করে। আমাদের এমনভাবে থানায় নিয়ে যাওয়া হয় তাতে মনে হচ্ছিলো আমরা কোনো বড়সড় জঙ্গি। এরপর থানায় নিয়ে গিয়ে করা হয় নানা প্রশ্ন। প্রত্যেকের বাড়ির ঠিকানা নেয় পুলিশ। এরপর জানতে চায় কেন আমরা ওইধরণের গেঞ্জি পড়েছি। এরকম হাজারও প্রশ্নবাণে জর্জরিত করে দেয় পুলিশ।