গরু পাচারের নতুন ফিকির সব্জির ঝুড়ি

image-1পেল্লায় মাপের ঝু়ড়িতে ঠেসেঠুসে পা বেঁধে বসিয়ে রাখা হয়েছে গরু। উপরে খান কতক কলাপাতা ছড়ানো। ঢাকনা-চাপা সেই ঝুড়ি দেখলে মনে হতে বাধ্য, ভিতরে রয়েছে সব্জি। কিন্তু ঢাকনা খুললেই কাতর চোখে চেয়ে আছে গরু!
বনগাঁ সীমান্তে পুলিশি পাহারা এড়াতে গরু পাচারকারীরা নিত্য নতুন ফন্দিফিকির বের করে। এর আগে অ্যাম্বুল্যান্সে গরু নিয়ে যাওয়া নজরে এসেছে। এ বার জানা গেল, সব্জির ঝুড়িতে গরু পাচারের ঘটনা।
বনগাঁর এসডিপিও অনিল রায় বলেন, ‘‘পাচারকারীদের এই পরিকল্পনা সামনে আসতেই আমরা মহকুমা জুড়ে সব্জির ঝুড়িতে তল্লাশি চালাচ্ছি।’’
উত্তর ২৪ পরগনা জেলা জুড়ে গরু পাচার রুখতে শুরু হয়েছে পুলিশি ধড়পাকড়। পুলিশের দাবি, গত ছ’মাসে অনেকটাই কমেছে গরু পাচার। যশোর রোড ধরে ট্রাকে করে শ’য়ে শ’য়ে গরু নিয়ে আসার পরিচিত দৃশ্য ইদানীং তেমন চোখে পড়ছে না। কিন্তু লাভজনক এই পাচার যে একেবারে বন্ধ হয়নি, ঝুড়িচাপা গরু উদ্ধারের পরে তা প্রমাণ হল। পুলিশ জানিয়েছে, দিন কয়েক আগে গোপালনগরের টালিখোলা মোড়ে ঝুড়িতে গরু নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল বলে খবর আসে। ওই ঝুড়ি ভ্যানে চাপানো হয়েছিল। পুলিশ কয়েকটি গরু আটক করে। গ্রেফতার করা হয় কয়েকজন পাচারকারীকে।
অনিলবাবু বলেন, ‘‘গত ৬ মাসে বনগাঁ মহকুমার বিভিন্ন থানা এলাকা থেকে দু’হাজারেরও বেশি গরু আটক করা হয়েছে। পাচারকারী ধরা পড়েছে শ’তিনেক। ছোট গাড়িতে গরু পাচার বন্ধ করতে রাস্তায় বিশেষ পুলিশি অভিযান শুরু করা হয়েছে।’’
স্থানীয় বাসিন্দা ও তদন্তকারী অফিসারেরা জানালেন, ভোরে চাষিরা খেত থেকে সব্জি তুলে ঝুড়ি-বোঝাই করে নিয়ে যান স্থানীয় হাটে-বাজারে। সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়েই ঝুড়িতে পা বেঁধে গরু তুলে দিচ্ছে পাচারকারীরা। অনেক সময়ে গরুর মুখ বাঁধা থাকছে। পাছে ডেকে না ওঠে।