কাশ্মীরের বালাকোট সেক্টরে প্রবল গোলাবর্ষণ পাকিস্তানের

LOC.jpgফের জম্মু ও কাশ্মীর সীমান্তে প্রবল উসকানি পাকিস্তানের। সোমবার (১৭ই জুলাই) সকাল থেকে সীমান্তে ভারতীয় সেনাঘাঁটি লক্ষ্য করে প্রবল গোলাবর্ষণ শুরু করে পাক সেনা। পাল্টা জবাব দেয় ভারতীয় সেনাও। সেনা সূত্রে খবর, পুঞ্চ ও রাজৌরি জেলার বালাকোট ও মানজাকোট সেক্টরে সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করে পাক রেঞ্জাররা। এই ঘটনায় শহিদ হয়েছেন এক জওয়ান, প্রাণ হারায় নয় বছরের এক বালিকা। জানা গিয়েছে, নিরীহ গ্রামবাসীদের নিশানা করছে পাক সেনা। ভারী মর্টার ও কামান ও মেশিনগান দিয়ে হামলা ভারতীয় জওয়ানদের উপর হামলা হয়।
প্রসঙ্গত, শনিবার (১৫ই জুলাই) জম্মু ও কাশ্মীরের রাজৌরি সেক্টরে নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর গুলি বর্ষণ করে পাকিস্তান সেনাবাহিনী। মর্টার হামলাও চালায় তারা। ওই হামলায় ল্যান্সনায়েক মহম্মদ নাসের নামে এক জওয়ান শহিদ হন। এর আগে, গত ১২ জুলাই উত্তর কাশ্মীরের কেরান সেক্টরে পাক হামলায় দুজন জওয়ান শহিদ হন। তার চার দিন আগে, পুঞ্চে দুজন নাগরিকের মৃত্যু হয়। আহত হন বেশ কয়েকজন সাধারণ মানুষ।
উল্লেখ্য, সিকিম সীমান্তে চিনের সঙ্গে ক্রমশ উত্তপ্ত হচ্ছে পরিস্থিতি। কাশ্মীরেও ক্রমশ নাক গলাতে শুরু করেছে বেজিং। সম্প্রতি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংকে এমনটাই জানিয়েছেন জম্মু ও কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি। এই পরিস্থিতিতে সীমান্ত উত্তপ্ত করে উপত্যকায় জঙ্গি ঢোকানোর ছক করছে পাকিস্তান। এরই প্রেক্ষিতে সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত জানিয়েছেন একসঙ্গে চিন ও পাকিস্তানের সঙ্গে ভারত লড়াই চালিয়ে যেতে সক্ষম। দেশের সেনাবাহিনীর আধুনিকীকরণের জন্য প্রয়োজন প্রায় ২৭ লক্ষ কোটি টাকা। আগামি পাঁচ বছরে ভারতীয় সেনাবাহিনীর উন্নয়নে ও পরিকাঠামোর আধুনিকীকরণের জন্য এই অর্থের প্রয়োজন। সেনা সূত্রে এই খবর মিলেছে।

Advertisements