বসিরহাটে হিন্দুদের অনুষ্ঠানে দুষ্কৃতীদের হামলা, গ্রেফতার হাফিজুল মোল্লা

গত ১৪ অক্টোবর উঃ ২৪ পরগনার জেলার, বসিরহাট থানার অর্ন্তগত বসিরহাট ২নং ব্লকের রাজেন্দ্রপুর অঞ্চলের খড়িডাঙ্গা গ্রামে বির্সজনের পর খড়িডাঙ্গা স্কুল মাঠে বিচিত্রানুষ্ঠান আয়োজন করেছিল গ্রামবাসীবৃন্দ৷ অনুষ্ঠান চলাকালীন পাশের মিনাখাঁ থানার চাঁপালী গ্রামের কুখ্যাত সমাজবিরোধী মজনু গাজীর নেতৃত্বে ১০-১৫ জন মদ্যপ অবস্থায় অনুষ্ঠান দেখতে দেখতে কল্পনা মন্ডল, লক্ষ্মী মন্ডল সহ গ্রামের অন্যান্য মেয়েদের দিকে কুৎসিত অঙ্গভঙ্গী করতে থাকে৷ স্থানীয় গ্রামবাসীরা তাদের বোঝানোর চেষ্টা করেন কিন্তু বিফল হয়৷ এরপর তাদেরকে চলে যেতে বললে গন্ডগোল শুরু হয়৷ উভয়পক্ষের মধ্যে ঠেলাঠেলী হয়। এরপর ওই সব দুষ্কৃতীরা গ্রামবাসীদের শাষিয়ে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে আসছি বলে চলে যায়। পরে পুলিশ আসে ও স্থানীয় তৃনমূল নেতৃত্বের হস্তক্ষেপে মিটমাট হয়৷
আজ সকাল ৭টা নাগাদ শান্তুনু বাছাড় নামে এক গ্রামবাসী গাঁড়াকুপ বাজারে মাছ বিক্রি করতে গেলে মজনু গাজীর নেতৃত্বে ৫০ জন দুস্কৃতি তাকে তুলে নিয়ে যায় এবং বেধরক মারতে থাকে। যারা ঠেকাতে গিয়েছিল তারাও ছাড় পায়নি৷ এরপর স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত প্রতিনিধি হস্তক্ষেপ করে ছাড়িয়ে শান্তুনু কে বাড়ি পাঠায়৷ গ্রামবাসী ক্ষিপ্ত হয়ে বদলা নিতে একত্রিত হয় কিন্তু প্রশাষন ও কমব্যাক্ট ফোর্স হিন্দু গ্রাম ঘিরে ফেলে৷ গ্র৷মবাসী এরপর থানায় যায় এবং মজনু গাজী, সৈফুদ্দিন মোল্লা, কালু মোল্লা সহ অন্যান্যদের নামে FIR করে৷ FIR নম্বর 1252/16। মুসলিম দুষ্কৃতীরা থানায় যাওয়ার পথে বাধা সৃষ্ঠি করে এবং হুমকি দেয় যে কেস করলে জানে মেরে ফেলবে৷ শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী পুলিশ হাফিজুল মোল্লা, পিতা এফারতুল্লা মোল্লা, নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে।