অশ্লীল আচরণে বাধা দেওয়ায় হাসনাবাদে কীর্তন মঞ্চ ভাঙচুর

এবার কীর্তনের আসরে হামলা চালাল মুসলমানরা । গত বুধবার (৮ই ফেব্রুয়ারী) রাত ৮ টা নাগাদ উত্তর ২৪ পরগনা জেলার হাসনাবাদ থানার টাকী-মালঞ্চ রোডের তকীপুরে পল্লীমঙ্গল সমিতি নামক একটি ক্লাবের হরিসভায় ভীম একাদশী উপলক্ষ্যে একটি বাৎসরিক কীর্তন আয়োজিত হয়। আসরে অনেক মহিলাও উপস্থিত ছিলেন। সেই মহিলাদের সামনে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গী করতে থাকে মোস্তফা ও রউফ নামে স্থানীয় দুই মুসলিম যুবক।
ওই ক্লাবের সদস্য সুমন গোলদার নামে এক যুবক তাদের বাধা দেওয়ায় তারা তখনকার মতো ওইস্থান থেকে চলে যায়। তারপর স্থানীয় মুসলমানরা জোটবদ্ধ হয়ে সুমনের বাড়ীতে হামলা চালায় ও ভাঙচুর করে। সেখান থেকে পল্লীমঙ্গল ক্লাবে গিয়ে টিভি, আসবাব, ক্রীড়া সামগ্রী ভাঙচুর করে। কয়েকজন হিন্দু তাদের আটকাতে গেলে বাঁশ দিয়ে বেধড়ক মারধোর করে। বেশ কয়েকজন হিন্দু জখম হয়। ওখানকার স্থানীয় বাসিন্দা ভীম মন্ডল নামক এক ব্যক্তি গুরুতর আহত হয়। তাকে স্থানীয় টাকি গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এতেও থেমে থাকেনি মুসলমানেরা। তারা হরিসভার কীর্তনের মঞ্চে গিয়ে তা তছনছ করে। কীর্তনের আসর পন্ড হয়।
স্থানীয় হিন্দুরা হাসনাবাদ থানায় ১৭ জনের নামে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। ঘটনার পরে পুলিশ মোস্তফা ও রউফ নামে দুইজনকে গ্রেফতার করে। বাকিদের খোঁজ-খবর চলছে।

Advertisements