এক বাবার ৩৬ বাচ্চা পাকিস্তানে!

আর তিনজনের মোট ৯৬। দেখে আঁতকে উঠছেন জনগণনাকারীরা। পাকিস্তানে এহেন জনবিস্ফোরণের দায় যাদের, সেই বাবারা অবশ্য এতটুকু অনুতপ্ত নন। তাঁদের দার্শনিক সুলভ উত্তর, ঈশ্বর পৃথিবী ও মানুষ তৈরি করেছেন অতএব তিনি কেন এই স্বাভাবিক প্রক্রিয়াকে বন্ধ করবেন।
দীর্ঘ ১৯ বছর বাদে পাকিস্তানে জনগণনা শুরু হয়েছে। পাকিস্তানের সম্পদের তুলনায় জনসংখ্যা দ্রুত হারে বাড়ছে, এই তথ্য আগেই প্রকাশ পেয়েছিল। এই বিষয়ে নিজেদের উদ্বেগের কথা জানিয়েছিল সে দেশের বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে জন্মের হার সবথেকে বেশি পাকিস্তানে। এখানে একজন মহিলাপিছু তিনটি করে সন্তান জন্মানোর গড়। কিন্তু এবার জনসুমারির রিপোর্ট সামনে আসতেই জানা গেল, পাকিস্তানের তিন নাগরিকের মোট বাচ্চার সংখ্যা প্রায় ১০০ ছুঁই ছুঁই।
ওই তিন জন্মদাতার মধ্যে একজন ৩৬ বছরের গুলজা়র। বলেন, “ঈশ্বর এই গোটা পৃথিবী ও সমস্ত মানুষ সৃষ্টি করেছেন। তা হলে আমি কেন সন্তান জন্মানোর স্বাভাবিক প্রক্রিয়া আটকানোর চেষ্টা করব?”
বান্নু নামে পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিম প্রদেশের ৫৭ বছর বয়সি এক নাগরিক আবার সুখে সংসার করছেন গর্ভবতী তৃতীয় স্ত্রীর সঙ্গে। এখন তাঁর ২৩ বাচ্চা। তাদের দেখিয়ে তাঁর মন্তব্য, “আমরা শক্তিশালী হতে চাই। আর আমার বাচ্চাদের ক্রিকেট ম্যাচ খেলতে গেলে নতুন করে খেলোয়াড় খুঁজতে হবে না।”

Advertisements